মির্জাপুরে বখাটেদের হামলায় ইউপি সদস্য হেলাল আহত

0 5

মির্জাপুর প্রতিনিধি ঃ

 

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বখাটেদের হামলায় আব্দুল কাদের আল হেলাল (৪৬) নামে এক ইউপি সদস্য গুরুতর আহত হয়েছেন। রবিবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার গোড়াই ইউনিয়নের রানাশাল গ্রামে এ হামলার ঘটনা ঘটে। পরে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে তাকে উপজেলাস্থ জামুর্কী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। আব্দুল কাদের আল হেলাল গোড়াই ইউনিয়ন পরিষদের ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য ও কলিমাজানী গ্রামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে। সোমবার দুপুরে ইউপি সদস্য ৫জনকে অভিযুক্ত করে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।লিখিত অভিযোগ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, ইউনিয়নের ভানুয়াবহ গ্রামের বখাটে কয়েক যুবক মাঝে মধ্যে পাশ্ববর্তী রানাশাল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে গিয়ে মাদকসেবন করে আড্ডা দেয়। এ বিষয়ে রানাশাল গ্রামের যুবকরা স্কুল মাঠে মাদকসেবন ও আড্ডা দিতে নিষেধ করে। এনিয়ে কয়েকদিন আগে দুপক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডা হলে ভানুয়াবহ গ্রামের যুবকদের চরথাপ্পর মারে। এঘটনার পর ভানুয়াবহ গ্রামের যুবকরা ক্ষিপ্ত হয়ে গতকাল রবিবার বিকেলে দলবল নিয়ে রানাশাল গ্রামের যুবকদের উপর হামলা চালায়। কিন্ত রানাশাল গ্রামের যুবকদের প্রতিরোধে ভানুয়াবহ গ্রামের যুবকরা পালিয়ে আসে। এ সময় হামলাকারী দলের তিন যুবককে রানাশালের ছেলেরা আটক করে। খবর পেয়ে রাতে গোড়াই ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত নারী সদস্য ও ভানুয়াবহ গ্রামের বাসিন্দা জাহানারা বেগম আটক যুবকদের ছারিয়ে আনতে ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার হেলালের সহযোগিতা চান। দুপক্ষের কথা শুনে বিষয়টি মীমাংসা করে আটক যুবকদের ছারিয়ে আনতে রাত নয়টার দিকে হেলার মেম্বার মহিলা মেম্বারকে নিয়ে মোটরসাইকেলে রানাশাল গ্রামে পৌছালে গ্রামের বখাটে যুবক আজিকুর (৩৫) লিটন মিয়া (২৮) সোহেল মিয়া (৪০) কালাম মিয়া (৪০) ও সোহেল মিয়া (৩২) লাঠি-সোটা ও লোহার রড নিয়ে দু মেম্বারের ওপর হামলা চালায়। এ সময় মহিলা মেম্বার দৌড়ে পাশের একটি ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে প্রাণে রক্ষা পেলেও বখাটেরা হেলাল মেম্বারকে বেদরক মারপিট করে। তাদের হামলায় হেলাল মেম্বারের মাথার ওপরে ও শরীরে বিভিন্নস্থানে রক্তাক্ত নীলাফুলা জখম হয়। পরে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে উপজেলাস্থ জামুর্কী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সোমবার দুপুরে উল্লেখিত ৫ জনকে আসামী করে হেলাল মেম্বার বাদী হয়ে মির্জাপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। এদিকে গোড়াই ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আদিলুর রহমান খান বিনাকারণে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধির উপর হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বখাটেদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন। মির্জাপুর থানার ডিউটি অফিসার উপপরিদর্শক (এসআই) নূরুল ইসলাম অভিযোগ পাওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে

Leave A Reply

Your email address will not be published.