কালিহাতীতে প্রতিবন্ধীর ঘর আগুনে পুড়ে ছাই \ নিঃস্ব পরিবার

0 4

কালিহাতী প্রতিনিধি ঃ

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে আগুনে পুড়ে ছাই হয়েছে শারিরীক প্রতিবন্ধী খোকন মিয়ার টিনসেড ঘর। মঙ্গলবার (৯মার্চ) দিনগত রাতে উপজেলার এলেঙ্গা পৌরসভার ভাবলা গ্রামের মৃত আলো মিয়ার ছেলে খোকন মিয়ার ঘরে এই আগুন লাগে। স্থানীয়দের সহযোগীতায় একঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিস। এর মধ্যেই আসবাবপত্র সহ পুরো ঘরটি পুড়ে ছাই হয়ে প্রায় কয়েক লাখ টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে বলে জানান প্রতিবন্ধী খোকন মিয়া। ধারণা করা হচ্ছে বৈদ্যুতিক সর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। দিন শেষেমাথা গোঁজার একমাত্র ঘরটি পুড়ে যাওয়ায় এখন নিঃস্ব খোকন মিয়া।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানাযায়, সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় হঠাৎ খোকন মিয়ার দো’চালা টিনের ঘরটিতে আগুন জ্বলতে দেখা যায়। মুহুর্তেই তা ছড়িয়ে পড়ে। প্রতিবেশী ও স্থানীয়রা পানি ও বালু দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করতে থাকেন, পরে এলেঙ্গা ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট এসে ঘণ্টা ব্যাপী চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু এর আগেই ঘরসহ সব পুড়ে ছাই হয়ে যায়।
ভুক্তভোগী প্রতিবন্ধী খোকন মিয়া জানান, মাকে নিয়ে কোনো রকমে দিন কাটত ঘরটিতে। সারাদিন ভাবলা বাজারে কাঁচামাল বিক্রি শেষে ঘরটিতে মা’কে নিয়ে বসবাস করতাম। কিন্তু আগুনে আমার ঘরটির সঙ্গে কপালও পুড়েছে। আমি একেবারে নিঃস্ব হয়ে পড়েছি। পড়নের কাপড় ছাড়া আর কিছুই নেই আমাদের। একটি ঘর নির্মাণ করা আমার জন্য দুঃস্বপ্ন। এসময় মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর নিকট মাকে নিয়ে বাস করার মতো একটি ঘরের আবেদন করেন প্রতিবন্ধী খোকন মিয়া।
এলেঙ্গা পৌরসভার কাউন্সিলর শরীফুল ইসলাম তালুকদার বলেন, আমি দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি, শারিরীক প্রতিবন্ধী খোকন মিয়া যেন দ্রæত সরকারি সহযোগিতা পান এজন্য কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি।
এলেঙ্গা ফায়ারসার্ভিস ও সিভিলডিফিন্সের স্টেশন অফিসার আবুল কালাম জানান, বৈদ্যুতিকসর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে। যা মুহুর্তের মধ্যেই পুরো বাড়িতে ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয়দের সহায়তায় একঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে কয়েক লাখ টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.