যৌতুক লোভী নজরুল- ২২ বছরের সংসার জীবন স্ত্রীকে গোপনে তালাক

0 15

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:

স্বামীর অত্যাচার ও নির্মম নির্জাতনের স্বীকার বিলকিস আক্তারের জীবন অতিষ্ট। এমন ঘটনাটি ঘটেছে টাঙ্গাইল জেলার সখিপুর উপজেলার কাকরাজান ইউনিয়নের ঘাটেশ্বরী গ্রামে। ইয়ার মামুদের মেয়ে বিলকিসের সঙ্গে একই এলাকার শহর আলীর ছেলে নজরুল ইসলাম (৪৫) এর সঙ্গে ২ লক্ষ ১ টাকার দেন মোহর ধার্য্য করে ১৯৯৮ সালে ইসলামী শরিয়ত মোতাবেক বিবাহ রেজিস্টার হয়। তাদের দাম্পত্য জীবনে দুটি সন্তান জন্মগ্রহণ করেন। ছেলে বিপ্লব ও মেয়ে নদী উভয়ই কলেজ পড়–য়া ছাত্র-ছাত্রী। তাদের চারজনের সংসার জীবন বেশ সুখেই কাঁটছিলো। হঠাৎ করেই যৌতুক লোভী নজরুল তার স্ত্রীকে মারপিট ও বিভিন্ন ভাবে অত্যাচার ও অমানবিক নির্যাতন করে। অসহায় বিলকিস তার বাবার বাড়ি থেকে সাধ্যমত টাকা পয়সা এনে দেয়। তারপরও চলতে থাকে নির্মম নির্যাতন। পরবর্তিতে লোভী নজরুল বিদেশে যাওয়ার জন্য আরেকটি নতুন কৌশল অবলম্বন করে। টাকার জন্য মারপিট করে বিলকিসকে। তারপর ৫ লক্ষ টাকা হাতিয়ে বিদেশ পারি দেয়। দীর্ঘদিন প্রবাসে থাকার পর দেশে ফিরে এসে একইভাবে যৌতুকের ফন্দি এটে আবারও ৫ লক্ষ টাকা বিলকিসের নিকট দাবী করে। এতে ভূক্তভোগী বিলকিস দিতে অপারকতা জানায়। এই পাষন্ড নজরুল ক্ষীপ্ত হয়ে অত্যাচারের মাত্রা আরও বাড়িয়ে দেয়। অবশেষে নজরুলের মা-বাবার কু পরামর্শে বিলকিসকে তালাক দেয়। এতে বিলকিসের পরিবার ১৬ই অক্টোবর সখিপুর থানায় একটি মামলা (৬/১৪১) দায়ের করে। উক্ত মামলাটি তুলে নেওয়ার জন্য বিলকিসের পরিবারকে বিভিন্নভাবে হুমকী ধামকি দিয়ে আসছে নজরুল এবং তার পরিবার।

বর্তমান দুই ভাই বোনের কলেজে পড়া অনিশ্চিত হয়ে পড়লো। সুখের জীবন হারিয়ে ফেললো। বিলকিসের ২২ বছর সংসার জীবনের সুখের দিনগুলো মিনিটেই কাঁচের মত ভেঙে তছনছ হয়ে গেলো। সেও জানেনা তার ঠিকানা এখন কোথায়। এদিকে যৌতুক লোভী নজরুলও মেতে উঠেছে পরকীয়ায়। এমত অবস্থায় অসহায় বিলকিস দুটি সন্তানকে নিয়ে মানবেতর জীবন কাটাচ্ছে তার বাবার বাড়িতে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.