সখিপুরে পূর্বশত্রুতার জেরে ছুরিকাঘাতে বৃদ্ধ খুঁন

0 1

সখিপুর প্রতিনিধি ঃ

 

টাঙ্গাইলের সখিপুরে খোরশেদ আলম (৬০) নামে ছুরিকাঘাতে এক বৃদ্ধকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার রাতে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। সে সখিপুর উপজেলার বড়চালা গ্রামের মোকদম আলীর ছেলে। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে হানিফ বাদী হয়ে সখিপুর থানায় মামলা করলে একই গ্রামের মোকছেদ ও সানোয়ার নামে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। নিহত খোরশেদ আলমের ছেলে হানিফ সিকদার জানান, গত বৃহস্পতিবার (২০ আগস্ট) রাতে বংকুরি বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে পূর্ব শক্রুতার জের ধরে একই গ্রামের মোকছেদ আলী, সানোয়ার হোসেন, তোতা মিয়া, আব্দুর রহিমসহ অজ্ঞাত ২/৩ জন খোরশেদ আলমকে ঘিরে ধরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে বুকের পাজরে আঘাত করে। পরে মৃত্যু নিশ্চিত করতে তাঁর মুখে কীটনাশক ঢেলে দেয়। গুরুতর আহত অবস্থায় খোরশেদ আলম রাস্তার পাশে কাজী মিয়ার বাড়িতে গিয়ে পড়লে ওই বাড়ির লোকজন খোরশেদের বাড়িতে খবর দেয়। খবর পেয়ে বাড়ির লোকজন এসে তাকে সখিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। অবস্থা অবনতি হলে টাঙ্গাইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে সেখান থেকে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হলে শুক্রবার রাত সাড়ে এগারোটার দিকে খোরশেদ আলমের মৃত্যু হয়। নিহত খোরশেদ আলমের দুই ছেলে সোলাইমান ও হানিফ সিকদার জানান, আসামীদের সঙ্গে তাদের জমিজমা ও রাস্তা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। পূর্বশত্রুতার জের ধরে আসামীরা এই খুন করেছে বলে আহত অবস্থায় খোরশেদ আলম তাদের জানিয়েছেন। মির্জাপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) হাবিবুর রহমান উকিল জানান, নিহত ব্যক্তির বুকের পাজরে ছুরির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে বলে তিনি জানান। সখিপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) বদিউজ্জামান জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর দুই আসামীকে গ্রেপ্তারের পর সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করে বিজ্ঞ আদালতে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.