ঘাটাইলে সরকারি চাল কালো বাজারে বিক্রির এক সপ্তাহেও তদন্ত রিপোর্ট দিতে পারেনি উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক

0 99

ঘাটাইল প্রতিনিধিঃ

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলাধীন ২ নং ঘাটাইল ইউনিয়নের সরকারের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ১০ টাকা কেজি চাল কালো বাজারে বিক্রি করার ঘটনাার এক সপ্তাহেও তদন্ত রিপোর্ট দিতে পারেনি তদন্ত কর্মকর্তা। এদিকে দায়ী ব্যাক্তিদের বিরুদ্ধে তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও ইউএনও অঞ্জন কুমার সরকার ঘাটাইল থানা অফিসার ইন চার্জকে নির্দেশ দিলেও অজ্ঞাত কারণে থানা এখন পর্যন্ত কোন ব্যবস্থা নেয়নি। ফলে এ নিয়ে স্থানিয়দের মাঝে চরম অসন্তোষ বিরাজ করছে।
এখানে উল্লেখ থাকে যে, গত ৮ এপ্রিল ভোরে ওই ইউনিয়নের কুলিয়া গ্রামের বুলু চৌকিদার তার বাড়ি থেকে ১০ টাকা কেজি সরকারি চাল ৭টি বস্তায় তুলে দিয়ে অটো চালক তাহেরের মাধ্যমে কালোবাজারে বিক্রির জন্য স্থানিয় টিলাবাজারের শাজাহানের চালের দোকানে নিয়ে যাচ্ছিল। পরে ওই বাজারে ঢোকার পথে এলাকার লোকজন ধরে ফেলে। পরে এ ঘটনায় অটোচালকের ১০ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেন ভ্রাম্যমান আদালত। তবে এলাকাবাসি অভিযোগের তীর ছুড়েছে ২ নং ঘাটাইল ইউপি চেয়ারম্যান হায়দর আলীর দিকে। অপরদিকে টাঙ্গাইল জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো: কাামাল হোসেন ঘটনার সুষ্ঠ তদন্তের জন্য ঘাটাইল উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক শাকির হোসেন খানকে প্রধান করে তৎক্ষনাৎ তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে দুই কার্য দিবসের মধ্যে তদন্ত রিপোর্ট পেশ করার নির্দেশ দেন। কিন্তু ঘটনার এক সপ্তাহ পার হলেও এর কোন অগ্রগতি নেই।
জানতে চাইলে তদন্ত কর্মকর্তা শাকির হোসেন খান বলেন, করোনার জন্য কাজের চাপ রয়েছে। তাছাড়া কমিটির অন্যান্য সদস্যরা আসতে না পারায় তদন্ত কাজে যেতে পারি নাই।

Leave A Reply

Your email address will not be published.